বিনোদন

করোনার মোকাবেলায় ব্যবহার হবে রিয়াল মাদ্রিদের স্টেডিয়াম

করোনাভাইরাসের কারণে বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে আছে ইউরোপ। বিশেষকরে ইতালি ও স্পেন। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি লোক প্রাণ হারিয়েছেন এ দুই দেশে। করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে তাই কঠিন লড়াই চালাচ্ছে দেশদুটি। এবার সে লড়াইয়ে বেশ বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ। নিজেদের ফুটবল স্টেডিয়াম সান্তিয়াগো বার্নাব্যু করোনাভাইরাস মোকাবেলার কাজে ব্যবহারের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছে তারা।

স্পেন তথা পুরো ইউরোপেই অনেক দিন থেকে মাঠে ফুটবল নেই। মুলত করোনাভাইরাসের কারণে পুরো পৃথিবীই স্থবির। স্টেডিয়ামগুলো খাঁ খাঁ করছে। বার্নাব্যুতেও একই অবস্থা। তবে স্টেডিয়ামটিকে এ অবস্থায় ফেলে রাখছে না রিয়াল কর্তৃপক্ষ। চিকিৎসা সরঞ্জাম রেখে করোনা মোকাবেলার সেন্টারে পরিণত করার জন্য এর মধ্যেই উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে স্টেডিয়ামটিকে। ওষুধ থেকে শুরু করে স্যানিটাইজারের মতো সমস্ত অতিপ্রয়োজনীয় সামগ্রী এই মাঠে মজুত করা হবে।

কদিন আগেই করোনার কাছে হার মেনে সাবেক এক সভাপতিকে হারিয়েছে রিয়াল। আরেক সাবেক সভাপতিও আক্রান্ত হয়েছেন এ ভাইরাসে। ক্লাবটি এ ভাইরাস মোকাবেলায় আটঘাট বেছেই নেমেছে। মাদ্রিদের তহবিলে বড় অংকের অর্থ সাহায্যও করেছে ক্লাবটি। এবার চিকিৎসা সরঞ্জাম রাখার জন্য নিজেদের স্টেডিয়ামই খুলে দিল রিয়াল।

বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) এক বিবৃতিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে রিয়াল মাদ্রিদ। হাই স্পোর্টস কাউন্সিলের সঙ্গে একটি চুক্তিতে এই পরিকল্পনার কথা চূড়ান্ত করে ক্লাবটি জানিয়েছে, ‘দুটি সংস্থা নিজেদের মধ্যে সহযোগিতার মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে যে, বার্নাব্যুতে চিকিৎসা সরঞ্জাম রাখা হবে। আমরা এখানে করোনার বিপক্ষে লড়াইয়ের জন্য দান করা চিকিৎসা সরঞ্জাম জমা রাখব।’

এখন পর্যন্ত স্পেনে ৫৭ হাজার ৭৮৬ জনের বেশি নাগরিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যুর সংখ্যা চার হাজার ৩৬৫ ছাড়িয়েছে। এ ভাইরাসের মহামারী মোকাবেলায় ১২ এপ্রিল পর্যন্ত পুরো দেশ তাই লকডাউন করে রাখা হয়েছে।

Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

সর্বশেষ

To Top