ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর ‘ফাইনাল চ্যালেঞ্জ’

রিমন ইসলাম
ফেব্রুয়ারী ৯, ২০১৭
 রিয়াল মাদ্রিদের অতীত ইতিহাস রোনালদোর বিপক্ষেই যাবে। রিয়াল মাদ্রিদের অতীত ইতিহাস রোনালদোর বিপক্ষেই যাবে।

ক্যারিয়ার জুড়েই নানান চড়াই উৎরাই পেরিয়ে সাফল্যের শীর্ষে ওঠা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর সামনে অপেক্ষা করছে নতুন চ্যালেঞ্জ। ৩০ বছরের পর থেকেই ইতিহাসের সব তারকা ফরোয়ার্ডরাই ভুগেছেন গোলখড়ায় এবং বয়স বাড়ার সাথে সাথে ক্রমেই হারিয়েছেন পুরনো ফর্ম। সদ্যই ৩২ বছরে পা দেয়ার পর প্রথম ম্যাচ খেলার আগে তাই মাঠের লড়াইয়ের পাশাপাশি রোনালদোকে লড়তে হবে বয়সের সাথেও।

রিয়াল মাদ্রিদ তথা ফুটবল ইতিহাসের দুই সাবেক কিংবদন্তী ফরোয়ার্ড ফেরেঙ্ক পুসকাস এবং আলফ্রেডো ডি স্টেফানো ছাড়া আর কেউই সেভাবে ৩২ এ প্রবেশের পর সেভাবে নিজেদের ফর্মের ধারাবাহিতা ধরে রাখতে পারেননি। ক্রমেই উইঙ্গার থেকে বক্স টু বক্স ফরোয়ার্ডে পরিণত হওয়া রোনালদোর খেলার ধরনের পরিবর্তন, হাটুর ইনজুরি, গতির হ্রাস ইত্যাদি মিলিয়ে দিন দিন রিয়াল মাদ্রিদ ভক্তদের মাঝেও আশঙ্কা জেগে উঠেছে তাদের সেরা তারকার ফর্ম নিয়ে।

আশঙ্কাটা যে ভিত্তিহীন নয় তার প্রমাণ চলতি মৌসমে রোনালদোর গোলখড়া। ২০১৬-১৭ মৌসমে রিয়ালের হয়ে রোনালদোর গোলসংখ্যাও তার গত পাঁচ মৌসমের মধ্যে সর্বনিম্ন।

রিয়াল মাদ্রিদের অতীত ইতিহাসও রোনালদোর বিপক্ষেই যাবে। ৩২ বছরে পদার্পণের পর আগে মৌসমপ্রতি গড়ে ৩১ গোল করা ডি স্টেফানোর মৌসমে গোলসংখ্যা নেমে এসেছিল গড়ে ২৪ টিতে। রিয়াল মাদ্রিদের আরেক কিংবদন্তী ও ঘরের ছেলে রাউল গঞ্জালেসও ফর্ম হারিয়েছিলেন একই সময়ে। ৩২ তম জন্মদিন পালনের আগ পর্যন্ত মৌসমে গড়ে ১৪ গোল দেয়া রাউলের গড় গোলসংখ্যা কমে হয়েছিল মাত্র ৫।

বয়সের ভাড়ে ফর্ম হারানো ফরোয়ার্ডদের এই লম্বা তালিকায় রয়েছেন সাবেক ডাচ ফরোয়ার্ড রুড ভ্যান নিস্টলরয়। ২৬.৫ থেকে তার গড়টা নেমে এসেছিল ৫.৫ এ। উল্লেখযোগ্য আরেকটি নাম হুগো সানচেজ, মৌসমপ্রতি গড়ে ৩৭ গোল দেয়া এই তারকার গড় নেমে এসেছিল ১১ তে!

গত ছয় মৌসম ধরে টানা অর্ধশতাধিক গোল করা রোনালদো জন্য এই মৌসমেও রেকর্ড বজায় রাখাটা হবে বেশ কঠিন চ্যালেঞ্জ। ইতিমধ্যেই ঘরের মাঠেই দর্শকদের দুয়োধ্বনি শুনতে হচ্ছে তাকে। গোলমেশিন রোনালদোর মাঝে আগের ক্ষিপ্রতার অনুপস্থিতি ক্লাবের ভক্তদের চিন্তিত করে তুলছে। তবে নামটা রোনালদো বলেই শেষটা বলে ফেলা মুশকিল।

যতবারই তাকে বাতিলের খাতায় ফেলে দেয়া হয়েছে ততবারই তিনি বীরবিক্রমে ফিরে এসেছেন নিজের রাজত্বে। তাই একমাত্র সময়ই বলে কিভাবে এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেন চারবারের ব্যালন ডি অর জয়ী এই পর্তুগিজ তারকা!

Category : ফিচার
Share on your Facebook
Share this post