একজন মাশরাফির খোঁজে...

সঞ্জয় পার্থ
এপ্রিল ৭, ২০১৭
 ‘বিকল্প’ মাশরাফিকে খুঁজে বের করতে হবে বাংলাদেশকে ‘বিকল্প’ মাশরাফিকে খুঁজে বের করতে হবে বাংলাদেশকে

টি-টোয়েন্টি থেকে মাশরাফি বিন মর্তুজার হঠাৎ অবসরের ঘোষণা কিছুটা বিস্ময় হয়েই এসেছে। কেননা এমন এক সময়ে তিনি অবসর নিলেন, যখন বাংলাদেশ ক্রিকেট সবচেয়ে স্থিতিশীল অবস্থায় আছে। তবে টসের সময়ে যেভাবে মাশরাফি হুট করে ঘোষণাটা দিলেন, সেটা ইঙ্গিত করে, পর্দার পেছনে সবকিছু হয়তো ঠিকঠাক ছিল না। যদিও পরবর্তীতে মাশরাফি নিজেই স্বীকার করেছেন সিদ্ধান্তটা আকস্মিকই ছিল।

২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর থেকেই দলে বড়সড় একটা পরিবর্তনের গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল, যদিও বাংলাদেশ এখনো মাশরাফিদের মত খেলোয়াড়ের বিকল্প খুঁজে বের করতে পারেনি। নিউজিল্যান্ডে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ৩-০ তে বিধ্বস্ত হওয়ার পরে, এবং শ্রীলঙ্কায় প্রথম টেস্টে ২৫৯ রানে হারার পরে সেই আলোচনার ডালপালা আরও বিস্তৃত হয়।

মাহমুদউল্লাহকে দ্বিতীয় টেস্ট থেকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়, এছাড়া আরও কিছু বড় সিদ্ধান্ত গ্রহণের কথাও শোনা যাচ্ছিল। এমনটাও শোনা গিয়েছিল টি-টোয়েন্টি দলে উল্লেখযোগ্য কিছু পরিবর্তন আসতে চলেছে, যার মধ্যে একটি হল মাশরাফিকে অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া।

মাশরাফি একজন প্রবল আত্মসম্মানবোধ সম্পন্ন মানুষ, এসব আলোচনা নিশ্চয়ই তিনি ভালভাবে নেননি। গত চার সপ্তাহের মত সময়ে নিশ্চয়ই তিনি বিবেচনা করেছেন তাঁর হাতে কি কি অপশন আছে। ক্রিকেট ও বাংলাদেশ দলের প্রতি তাঁর প্যাশনই এতদিন ধরে খেলা চালিয়ে যাওয়ার পেছনে বড় ভূমিকা পালন করেছে।

দলের ভবিষ্যৎও মাশরাফির মনে খেলা করেছে: তাঁর চেয়ে তরুণ এবং ভালো কোন খেলোয়াড়ের জায়গাটা তিনি দখল করে রেখেছেন কিনা সে চিন্তাও এসেছে তাঁর মনে। দলের প্রতি অখণ্ড মনোযোগ ধরে রাখতে হবে, এটাও সম্ভবত ভেবেছেন তিনি। যেহেতু তাঁর একটা নবীন সংসার আছে, এই ব্যাপারটাও হয়তো তাঁর সিদ্ধান্ত নেয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন করেছে।

এই টি-টোয়েন্টি দলে মাশরাফির বিকল্প খুঁজে পাওয়া কঠিনই হবে। ৪২ উইকেট নিয়ে তিনি এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের ৩য় সফলতম বোলার, পেসারদের মধ্যে সেরা। এই ফরম্যাটে অধিনায়ক হিসেবে তাঁর অর্জন দলকে ২০১৬ এশিয়া কাপের ফাইনালে নিয়ে যাওয়া, যেখানে গ্রুপ পর্বে পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কাকে হারিয়েছিল তাঁর দল।

এই ফরম্যাটে এখনো পর্যন্ত এটাই বাংলাদেশের সেরা সাফল্য, এবং সেই সময়টাতে মাশরাফি দারুণভাবে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। তবে ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে কিছু ক্লোজ গেম জিততে না পারাটা নিশ্চিতভাবেই মাশরাফির জন্য হতাশার হয়ে থাকবে।

টি-টোয়েন্টিতে বোলার মাশরাফির অভাব হয়তো বাংলাদেশ পূরণ করতে পারবে, কারণ তাসকিন আহমেদ ও মুস্তাফিজুর রহমান তাদের ক্যারিয়ার ভালভাবেই শুরু করেছেন। একাধিক ইনজুরি কখনোই মাশরাফিকে দ্রুততম ফিল্ডার হতে দেয়নি ঠিকই, কিন্তু ক্যাচ ধরার ক্ষেত্রে তিনি নির্ভরযোগ্য একজন ফিল্ডার ছিলেন।

আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তাঁর ব্যাটিং কখনোই সেভাবে সমাদৃত হয়নি, কিন্তু এই ফরম্যাটে এখনো বিগ শট খেলার সামর্থ্য তাঁর রয়েছে। ৩৮ ইনিংসে ২৩ ছক্কা নিয়ে তিনি এই ফরম্যাটে বাংলাদেশের চতুর্থ সর্বোচ্চ ছয় মারা ব্যাটসম্যান, এবং প্রায়ই লোয়ার অর্ডারে একজন বিগ হিটারের অভাব পূরণ করেছেন মাশরাফি। কোচ চান্দিকা হাতুরুসিংহে কে এখন নতুন একজন অলরাউন্ডার খুঁজতে হবে।

মাশরাফির অবসর ঘোষণার ম্যাচেই বাংলাদেশের হয়ে নতুন এক অলরাউন্ডারের অভিষেক হয়েছে, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ছেলেটার মধ্যে প্রতিভা ও সম্ভাবনা আছে, কঠিন পরিস্থিতিতে মাশরাফির মত বুক চিতিয়ে লড়াই করতেও জানে।

অধিনায়কত্ব পাওয়ার জন্যেও বেশ কয়েকজন প্রতিদ্বন্দ্বী আছেন। সাকিব আল হাসান বর্তমান সহ-অধিনায়ক, এছাড়া মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল ও মাহমুদউল্লাহর ও সম্ভাবনা আছে।

মাশরাফি দলের যে অবস্থা রেখে যাচ্ছেন নতুন অধিনায়ককে সেটা নিয়েই কাজ করতে হবে। দলের মধ্যে স্পিরিট ও জয়ের ক্ষুধাটা জাগিয়ে রাখতে হবে। তবে নতুন অধিনায়কের জন্য অস্বস্তির কারণ হতে পারে দলের ভেতরে বিসিবি প্রেসিডেন্টের নাক গলানো।

এমনটা শোনা গিয়েছে যে দল নির্বাচন থেকে শুরু করে দলের অনেক কিছুতেই বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান হস্তক্ষেপ করেন। এমনকি টিম মিটিংয়েও তিনি উপস্থিত থাকেন। বিগত কয়েক মাসে তিনি বেশ কয়েকবার সরাসরিই বলেছেন যে নির্দিষ্ট কোন খেলোয়াড়কে তিনি দলে দেখতে চান বা চান না। দলে কে খেলবে, কে বাদ পরবে এসব সিদ্ধান্ত নিজে গ্রহণ করেন বলে দাবিও করেছেন।

নাজমুল হাসান নিজেই বলেছেন তিনি নিয়মিত খেলোয়াড়দের সাথে কথা বলেন এবং অতি ক্ষুদ্র কোন সিদ্ধান্তেও নাকি তার হাত থাকে। মাশরাফি নাকি নাজমুলকে তার অবসরের সিদ্ধান্তের কথা আগে জানিয়েছিলেন। তারপরেও নাজমুল কেন মাশরাফিকে থেকে যাওয়ার জন্য রাজি করাতে পারলেন না, সেটা একটা আশ্চর্যের বিষয়।

বাংলাদেশ জাতীয় দলের আগের অনেক অধিনায়কের এর চেয়ে বাজেভাবেও বিদায় নেয়ার অভিজ্ঞতা হয়েছে, সেদিক থেকে মাশরাফি অন্তত নিজেকে ভাগ্যবান ভাবতে পারেন, নিজের ইচ্ছায় সন্তুষ্ট মনে অন্তত অবসরে যেতে পারছেন!

টেস্ট ও ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এখন স্পষ্টতই আগের চেয়ে শক্তিশালী দল, কিন্তু টি-টোয়েন্টিতে এখনো তারা সেভাবে উন্নতি করতে পারেনি। উন্নতির রাস্তাটা এখন তাদেরকে তাদের অনুপ্রেরণাদায়ী অধিনায়ককে ছাড়াই খুঁজে বের করতে হবে।

----------------

মূল লেখাটিতে ইএসপিএন ক্রিকইনফোতে Mashrafe left too soon, but Bangladesh have replacements শিরোনামে লিখেছেন ক্রিকেট বিষয়ক জনপ্রিয় গণমাধ্যমটির বাংলাদেশ প্রতিনিধি মোহাম্মদ ইশাম।

Category : অনুবাদ
Share on your Facebook
Share this post