গেইল ইস ব্যাক: ৪ ম্যাচে ৫৫ ছক্কা!

খেলাধুলা ডেস্ক
নভেম্বর ২৬, ২০১৬
 ১০ ইনিংসে ৫০ ছক্কা? এবার ৪ ইনিংসে ৫৫টি মারতে পারি! হাহাহহাহা... আসলে আমি তো ছক্কার জন্যই পরিচিত। সিক্স মেশিন হিসেবে চেনে লোকে ১০ ইনিংসে ৫০ ছক্কা? এবার ৪ ইনিংসে ৫৫টি মারতে পারি! হাহাহহাহা... আসলে আমি তো ছক্কার জন্যই পরিচিত। সিক্স মেশিন হিসেবে চেনে লোকে

ক্রিস গেইল কেবল ব্যাটে কথা বলেন না। মুখেও আসর মাতাতে জুড়ি নেই। আগের বার ঢাকায় নেমেই বলেছিলেন, বস ইস ইন ঢাকা। এবার বললেন, ক্রিস গেইল ইস ব্যাক।

এবার নাকি ৪ ম্যাচেই ৫৫ ছক্কা মারতে চান! আনন্দদায়ী এই সংবাদ সম্মেলনের পুরোটা পড়ে নিন।

কেমন লাগছে আবার বিপিএলে এসে?

ফিরে ভালো লাগছে। টুর্নামেন্ট শুরু হয়ে গেছে বেশ অনেক দিন। শুরু থেকেই খেলতে পারলে ভালো লাগত। তবে ব্যক্তিগত ঝামেলায় আসতে পারিনি। ইচ্ছা ছিল এখানে আসা। চিটাগং ভাইকিংসের হয়ে খেলতে মুখিয়ে আছি। শেষবার যখন পয়েন্ট টেবিল দেখেছি, দল চার নম্বরে ছিল। শুরুতে কিছু ম্যাচ হারার পর মোমেন্টাম পেয়েছে দল, মোমেন্টামে থাকা একটি দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারা সবসময়ই ভালো। আশা করি বিপিএলে আবার জয় দিয়ে শুরু করতে পারব। 

বিপিএলের খেলা কী ফলো করতে পেরেছেন?

হ্যাঁ, জ্যামাইকায় থাকতে কয়েকটি ম্যাচ দেখেছি। এই কয়েকটি ম্যাচ, কিছু হাইলাইটস। ভাইকিংসের স্কোরগুলো ইন্টারনেটে দেখেছি, কারণ জানতাম ওদের হয়ে খেলব। মাঝে মাঝে অন্য দলগুলির খেলাও দেখেছি, যাতে ওদের সম্পর্কে একটু ধারণা নিতে পারি। 

বিপিএলে নিজের রেকর্ড কী ভেঙে রেখে যেতে চান?

কতগুলি সেঞ্চুরি করেছি? দুটি না তিনটি? তিনটি! স্ট্যাট আমি আসলে গুলিয়ে ফেয়েছি। তবে পরিসংখ্যান নিয়ে আমি কখনোই ভাবিত নই, লক্ষ্য সবসময়ই মানুষকে যতটা সম্ভব বিনোদন দেওয়া। সিপিএলের পর প্রাঢ ৪-৫ মাস হয়ে গেছে, আমি ম্যাচ খেলিনি। খেলায় ফিরতে পেরেই তাই ভালো লাগছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে, টুইটারে অনেকেই বলছিল আমাকে মাঠে দেখতে চায়। কালকেই তাদের সুযোগ, টিভিতে চোখ নিবদ্ধ রাখার। শুধু এখানে নয়, বাইরেও। ক্রিস গেইল ইজ ব্যাক! 

নিজের লক্ষ্যটা কী?

আশা করি শুরুটা ভালো করতে পারব ব্যক্তিগত ও দলীয় ভাবে। তামিমের সঙ্গে ইনিংস ওপেন কার সুযোগ আসছে, সেটির  জন্যও আমি মুখিয়ে আছি। সেও ভালো ফর্মে আসে। আশা করি প্রয়োজনীয় এডজাস্টমেন্ট গুলো দ্রুত করে আপন চেহারায় ফিরতে পারব। 

তামিম-গেইল জুটি কেমন হবে?

মাত্রই আমার প্রথম ম্যাচ। কেবল নেট করে আসলাম, যেটি ছিল দারুণ। তামিম কন্ডিশন খুব ভাল জানে। আমি চাইলে একটু সময় নিতে পারি, দেখতে পারি তামম কিভাবে খেলছে। ও খেলার মধ্যেই আছে, জানে কিভাবে খেলতে হবে। আমি ওকে দেখে দ্রুত ধারণা নিতে পারি। ও অনেক অভিজ্ঞ। আমিও চেষ্টা করব যতটা সম্ভব

 

১০ হাজার রানের হাতছানি…বিপিএলেই হবে?

৩০০ রান দরকার? তোমার উচিত ছিল আমাকে আগে বলা, তাহলে শুরু থেকেই খেলতাম! হাহাহাহা… সত্যি বলতে, ১০ হাজার রানের মাইলফলক ছোঁয়া হবে দারুণ ব্যাপার। আমি হব প্রথম ব্যাটসম্যান। তবে আবারও বলছি, আগামীকালের শুরুটাই হবে গুরুত্বপূর্ণ। যত দুত সম্ভব মানিয়ে নেওয়াটা গুরুত্বপূর্ণ। সত্যি করে বলতে, মূল লক্ষ্য দলকে প্লে অফে কোয়ালিফাই করানো। প্লে অফে খেলতে চাই। 

১০ ইনিংসে ৫০ ছক্কা আছে। এবার কয়টা হবে?

১০ ইনিংসে ৫০ ছক্কা? এবার ৪ ইনিংসে ৫৫টি মারতে পারি! হাহাহহাহা... আসলে আমি তো ছক্কার জন্যই পরিচিত। সিক্স মেশিন হিসেবে চেনে লোকে। এটাই আমি সবচেয়ে ভালো পারি, ছক্কা মারতে। চেষ্টা করি যতটা সম্ভব বিনোদন দিতে। আশা করি কালকের উইকেট ভালো হবে। খেলায় ফিরে প্রথম ম্যাচে কিছুটা নার্ভাসনেস থাকতে পারে। তবে সেটাই জীবন। আমি উপভোগ করতে চাই। দর্শকও রোমাঞ্চিত আমি জানি। দর্শকের এনার্জিটাও আমি নিতে চাই, সেটা আমার জ্বালানি। লোকে যখন আমার কাছে ছয় চায়, চিৎকার করে, সেটা আমাকে ভালো করতে অনুপ্রেরণা জোগায়।

ছক্কা না পার্টি, কোনটা বেশি উপভোগ্য?

ছক্কা মারা। কারণ ছক্কা মারলে লাখ লাখ রোককে খুশি করা যায়। তবে পার্টি করতেও ভালো লাগে। তবে মাঠে নেমে আমি চাই যত বেশি সম্ভব ছক্কা মারতে। এখন বয়সও হয়েছে কিছুটা, অনেক ট্রাভেলিংয়ের ধকল আছে। এখান এসে স্রেফ একদিন অনুশীলনেই মাঠে নামার কাজটা কঠিন। তবে আমাদের এটার সঙ্গে মানিয়ে নিতেই হয়।

 

Share this post