মাস্টারদা তামিমের আন্দোলন চলছে

খেলাধুলা ডেস্ক
অক্টোবর ২৮, ২০১৬
    তামিম ইকবাল    তামিম ইকবাল

লাঞ্চের ঠিক আগে আগে বেন স্টোকসের একটা বল এসে লাগলো বুকে। শক্ত আঘাতে বসে পড়লেন তামিম ইকবাল। চিকিৎসা নিয়ে আবার উঠে দাড়ালেন। পরের বলটা রক-সলিড ডিফেন্স করে একটা দারুন চাউনি দিয়ে যেনো জবাব দিলেন।

এই যেনো এটা লড়াই; আন্দোলন।

এই বাংলাদেশ ভূখন্ডে সবচেয়ে বড় ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনটা হয়েছে চট্টগ্রামে।

মাস্টারদা সূর্যসেনের নেতৃত্বে সে আন্দোলন রীতিমতো ইতিহাসের বড় অধ্যায়ে পরিণত হয়ে গেছে। তামিম ইকবাল অবশ্য ইতিহাস নিয়ে অতো ভাবেন কি না, নিশ্চিত না। তবে ব্যাটকে বন্দুক ভাবলে, এ কালে তামিম ইকবালকে সেই চট্টগ্রামের নতুন মাস্টারদা বলতে আপত্তি কোথায়!

এই তো সেই ব্রিটিশদের বিপক্ষে আরেকটা কামানের গোলার মতো বিধ্বংসী ইনিংস খেলছেন তামিম।

তামিম একটা জায়গায় মাস্টারদার চেয়ে এগিয়ে। সূর্যসেন সারাটা আন্দোলন করেছেন চট্টগ্রামে বসেই। আর তামিম একেবারে ব্রিটেনে গিয়ে, তাদের বুকের ওপর দাড়িয়ে সবচেয়ে বড় কাজ দুটো করে এসেছেন; লর্ডস আর ম্যানচেস্টারে টেস্ট সেঞ্চুরি।

তামিম এ যাবৎ ক্যারিয়ারে ৪৪ টেস্টে রান সংগ্রহ করেছেন ৪০.৩৮ গড়ে। আর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সেই গড়টা লাফ দিয়ে চলে যায় ৬৫-এর ওপরে। গতকাল অবদি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সাড়ে পাচটা টেস্ট খেলেছেন তামিম; তাতে ৬টি ফিফটি ও দুটি সেঞ্চুরি আছে। আজ সেঞ্চুরি সংখ্যা ৩ হয়ে যেতেই পারে।

তামিমের ইংলিশদের বিপক্ষে বিপ্লবের শুরু নিজের শহর, মাস্টারদার শহর সেই চট্টগ্রামেই। ২০১০ সালে এই দলটির বিপক্ষে প্রথম ইনিংসেই ৮৫ রান পরেছিলেন। পরের টেস্টে ঢাকায় ৮৫ ও ৫২। লর্ডসে ৫৫ ও ১০৫, ম্যানচেস্টারে ১০৮ ও ২, গত টেস্টেই ৭৮ ও ৯!

ওয়ানডেতেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে আছে তামিমের একটি সেঞ্চুরি।

বোঝাই যাচ্ছে, ক্যারিয়ারে প্রতিপক্ষ হিসেবে সবচেয়ে পছন্দ এই ইংল্যান্ডকে। এই তামিমেরই ব্রিটিশ বিরোধীতার পেছনে মাস্টারদার অবদান না থেকে পারেই না।

Category : রম্য
Share this post