লেগস্পিনার আছে, লেগস্পিনার!

দেবব্রত মুখোপাধ্যায়
ডিসেম্বর ২২, ২০১৬
 লেগস্পিন লেগস্পিন

ভাই, বোন ও বন্ধুরা,

আমরা বড় বিপদে পড়ে আপনাদের দ্বারস্থ হয়েছি।

আমাদের এখন সব আছে। গত বছর দুই ধরে বিশ্বের অন্যতম ধারাবাহিক ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল আছেন। আমাদের মিডল অর্ডারে মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ নামের দুই ব্যাটিং স্তম্ভ আছেন। আমাদের হাতে তাসকিন আহমেদের মতো জেনুইন ফাস্ট বোলার আছেন। আমাদের আছেন সাব্বির রহমান রুম্মনের মতো ভয়ডরহীন ক্রিকেটার।

আর আপনারা তো জানেন যে, বিশ্বের সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান আছেন আমাদের দলে। এবং সর্বোপরি এই মুহুর্তে বিশ্বের সবচেয়ে কাঙ্খিত ও সমাদৃত বোলার মুস্তাফিজুর রহমানও আছেন। শেষ কথা হলো, আমাদের দলে মাশরাফি বিন মুর্তজার মতো একজন নেতা ও বোলার আছেন।

আমরা বলতে পারতাম যে, আমাদের কোনো অভাব নেই।

কিন্তু ভাই, বড়ই কষ্টের কথা, আমাদের স্পিনারের বড় আকাল যাচ্ছে। সব ধরণের স্পিনারের আকাল। তবে রিয়াদ মাঝে মাঝে কাজটা চালিয়ে দিচ্ছেন বলে অফস্পিনটা চলছে। ইদানিং মেহেদী হাসান মিরাজও অফস্পিনার হিসেবে দারুন সার্ভিস দিতে শুরু করেছেন। যদিও আমরা রাজ্জাক, ইলিয়াস সানিদের কিভাবে কিভাবে যেনো হারিয়ে ফেলেছি। তারপরও তাইজুল এবং সাকিব আল হাসানের কল্যানে বাহাতি স্পিনটাও চলছে।

কী বললেন? তাহলে আমাদের কিসের অভাব?

আজ্ঞে, আমাদের একজন লেগস্পিনার বড় দরকার। খুব দরকার। নিতান্ত দরকার।

লেগস্পিনার ব্যাপারটা আমরা আগেও অনেক খুজেছি। কাদির, ওয়ার্ন বা মুশতাকদের দেখে আফসোসও করেছি। কিন্তু আমরা লেগস্পিনার পাইনি। এক ওয়াহিদুল হক এসেছিলে; তাকেও সেভাবে পাইনি আমরা। কিন্তু পাইনি বললে তো চলবে না। আজকের দিনে লেগস্পিনার ছাড়া একদম চলছে না।

আপনারাই বলেন, আজকের দিনে দলে একজন লেগস্পিনার না থাকলে কী মানায়?

এই যে ইমরান তাহির, স্যামুয়েল বদ্রী, রশীদ খান, আদিল রশীদ; কত্তো লেগস্পিনার। আর না হোক, সব দলে ১১ জনে এক জন লেগস্পিনার আজকাল থাকে। এটাকে যাকে বলে কেকের ওপরে ক্রিম বা কোটের ওপরে টাই; কিংবা বলা যায়, পোলাওয়ের পাশে সালাদ। এগুলো না থাকলে ঠিক মানায় না।

দু চারটে পেসার, পাচ-ছয়টা ব্যাটসম্যানের পাশে একজন লেগস্পিনার না রাখলে মান সম্মান থাকছেন না, বুঝলেন!

তাই আমাদের একজন লেগস্পিনার খুব দরকার।

দেখেন, আমরা তো চেষ্টা কম করিনি। এই কেবল লেগস্পিন করতে পারে বলে কিছুকাল আমরা জুবায়ের হোসেন লিখনকে সব ফরম্যাটে খেলানোর চেষ্টা করলাম। হলো না। বেচারা ঘরোয়া ক্রিকেটে ম্যাচও পায় না, নিজেরও আগ্রহ নেই। তাই দেখেন একজন ব্যাটসম্যানদের ধরে নিয়ে গেলাম নিউজিল্যান্ডে; লেগস্পিন পারে বলে।

কিন্তু আজ সক্কাল বেলায় তো দেখলেন সব!

এখন আপনারাই পারেন উদ্ধার করতে। একটু বাড়ির আশেপাশে চোখ বুলিয়ে দেখেন না। যদি দেখেন যে একটু হেলে দুলে বলতে পারে, যদি দেখেন বলটা হাতের তালুতে পুরে ফেলতে পারে এবং সবচেয়ে বড় কথা, যদি দেখেন যে তর্জনির বদলে কনিষ্ঠ আঙ্গুলের পাশ থেকে বল বের করতে পারে; তাহলে আর মোটেও দেরী করবেন না। দয়া করে আমাদের নম্বরে একটা মিস কল দেবেন।

বাকীটা আমাদের দায়িত্ব।

আমরা জানি, এখনই হয়তো আপনারা গ্রিমেট, সুভাষ গুপ্তে বা চন্দ্রশেখর খুজে পাবেন না। নিদেনপক্ষে অলক কাপালি, আল শাহরিয়ার রোকনের মতো লেগস্পিনার তো বের করতে পারেন। আচ্ছা, বাদ দেন, রকিবুল হাসান বা জাভেদ ওমর বেলিমের মতো হলেও চলবে।

এটুকু তো ভাই জাতীয় দলের স্বার্থে করতে হবে।

আচ্ছা, সাব্বিরের কথা বললেন? তাও চেষ্টা কম করছি না আমরা। কিন্তু সে আবার ইদানিং লেগস্পিনটা করতে চায় না। কেমন ঘারত্যাড়া দেখেছেন তো। তাও চেষ্টা চালাচ্ছি আমরা।

আমাদের একার চেষ্টাতে তো হবে না। লেগস্পিনার খুজে না পাওয়াটা একটা জাতীয় সংকট। এই সময়ে আপনারা চুপ করে থাকলে কীভাবে হবে?

সাংবাদিক, উকিল, ডাক্তার; সকলের দিকে চেয়ে দেখুন। যেখানে দেখবেন কেউ হাত নাড়াচাড়া করছে, ভালো করে খেয়াল করুন। তারপর মোটামুটি নিশ্চিত হলেও মিসকল দিন। আমাদের ইমার্জেন্সি টিম চলে যাবে। এটুকু করুন।

আমরা লেগস্পিনার চাই, আমরা মান-সম্মান চাই। আর কিছুর দরকার নেই।

 

নোট: এই আবেদন লেখা অবস্থায় মার্শাল আইয়ুব মিস কল দিয়েছেন। তিনি লেগস্পিন করতে পারেন। আমরা বিবেচনা করছি। তাকে নিউজিল্যান্ডেও পাঠিয়ে দিতে পারি; লেগস্পিনার কোটায়।   

 

[ক্রিকইনফোতে আজই প্রকাশিত Can we have an allrounder, please? লেখা থেকে অনুপ্রানিত এই রম্য]

Category : রম্য
Share this post