ফিরে আসুন সৌম্য সরকার

সৌম্য সরকার সৌম্য সরকার

২০১৫ বিশ্বকাপের কথা।

সিমিং কন্ডিশনে বাংলাদেশের একজন পেস অলরাউন্ডার দরকার। অপ্রত্যাশিতভাবেই আগের সিরিজে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অভিষেক হওয়া সৌম্য সরকার ডাক পেলেন বিশ্বকাপ দলে।

তবে অভিষেক বিশ্বকাপে অলরাউন্ডার হিসেবে এমন কিছু করতে পারলেন না। বরং ভালো শুরু করেও রান বড় করতে না পারার আক্ষেপ নিয়েই টুর্নামেন্ট শেষ করলেন। এই নিয়ে তো খোদ মাশরাফিও মজা করতে পিছ পা হননি। তবে রাজত্ব করতে আসা সৌম্য হাল ছাড়েননি। বরং তরবারিতে শান দিয়েছেন, আরো ক্ষুরধার হয়েছেন। আর সেই তরবারি র আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে পাকিস্তান, দঃ আফ্রিকার মতো দলগুলো।

মারমার কাটকাটের সাথে ভয়ডরবিহীন দূর্বার ব্যাটিং।  ‘পেরিস্কোপ’ নামে নতুন এক উদ্ভাবনী শটেরও জনক বনে গিয়েছিলেন এই সৌম্য সরকার। সেই সৌম্যই হঠাত করে ইঞ্জুরির ভয়াল থাবায় আক্রান্ত হন। যার প্রভাবটা ভালোই পড়ে তার ক্যারিয়ারে। ইঞ্জুরি থেকে ফিরেই গতবছর বিপিএলে নিজের ছায়া হয়ে ছিলেন। সমর্থক দের প্রত্যাশা পূরন করতে পারেন নি টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপেও।

নির্বাচকরা তারপরেও তার উপর আস্থা হারান নি। বরং আফগানিস্তানের বিপক্ষের সিরিজে বাজে খেলে তিনি নিজেই আস্থার প্রতিদান দিতে পারেন নি। ফলস্বরুপ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে স্কোয়াডে থেকেও একটা ম্যাচেও একাদশে জায়গা পান নি। নিজেকে হারিয়ে খুঁজতে থাকা এই সৌম্যের উপরে সবার আস্থা সবসময়ই ছিলো। চলমান বিপিএলেও বাজে পারফর্ম করার পরেও তাই দলের সাথে ঠিকই অস্ট্রেলিয়া পাড়ি জমান।

তবে গতকাল প্রস্তুতি ম্যাচে সিডনী সিক্সার্সের বিপক্ষের লো স্কোরিং ম্যাচে প্রথমে বল হাতে ৫ রানে ৩ উইকেট শিকার করেন। পরে ব্যাট হাতে করেন ৯ বলে ঝড়ো ২০। নিউজল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় চাওয়া একজন সৌম্যের রানে ফেরা। পূর্বেকার সৌম্যের মতো ব্যাট হাতে বিপক্ষের উপর ছড়ি ঘোড়ানো সেই সৌম্যকে মিস করছে বাংলাদেশ ক্রিকেট টিম, সাথে আপামর খেলাপাগল জনতা।

প্রিয় সৌম্য, আপনি ফিরে আসুন সেই চেনা রুপে, সেই বিধ্বংসী সুমাইয়া সরকার হিসেবে, তাতে চূড়ান্ত লাভটা বাংলাদেশের ক্রিকেটেরই।

Category : মতামত
Share on your Facebook
Share this post