রাজু এখন আর আন্দাজে পেটান না

হাসনাইন মো: আকীফ
নভেম্বর ১২, ২০১৭
মিনি অলরাউন্ডার হয়ে উঠছেন আবুল হাসান রাজু মিনি অলরাউন্ডার হয়ে উঠছেন আবুল হাসান রাজু

কয়েকদিন আগে একজনের সাথে আবুল হাসান রাজুর ব্যাটিং নিয়ে কথা হচ্ছিলো, বলা যায় তর্ক। আমি বলেছিলাম আমার চোখে রাজু একজন ‘মিনি অলরাউন্ডার’, যার ব্যাটিং যেকোন আট/নয় নাম্বার ব্যাটসম্যানের চেয়ে অনেক ভালো। এটাও বলেছিলাম রাজু অবশ্যই আরেকটু উপরে ব্যাট করতে পারে ম্যানেজমেন্ট চাইলে। সে মানতে নারাজ, তার ভাষায় রাজুর টেস্ট সেঞ্চুনি একটা ‘ফ্লুক’ বা ঝড়ে বক পড়া।

আমি বলেছিলাম আমি রাজ্জাক ভাইয়ের ফিফটি, রফিক ভাইয়ের সেঞ্চুরী, মাশরাফি ভাইয়ের ফিফটি দেখছি, সেগুলা ছিলো কম বেশি স্লগ। আবার রাজুর সেঞ্চুরীও দেখেছি, সেটাকে আমার স্লগ মনে হয়নি, যথেষ্ঠ ব্যাকারণ মেনেই সে ব্যাট চালায়।

শুরুর কথা বলি, অনূর্ধ্ব-১৫ দল পর্যন্ত রাজু ছিলেন পিওর টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। দলের হয়ে ওপেন করেছেন একাধিকবার। দল সেটা বয়সভিত্তিক হলেও যে ব্যাটসম্যান সে কিন্তু ব্যাটিং করতে জানে। মিনহাজুল আবেদীন নান্নু একদিন রাজুকে নেটে বল করতে দেখেন ২০০৭ সালে। তিনিই প্রথম রাজুকে বোলার হবার পরামর্শ দেন। ২০০৮ সালে সিলেট বিভাগের হয়ে বোলার হিসেবে জাতীয় লীগে অভিষেক হয় রাজুর।

রাজু প্রথম টেস্টে সেঞ্চুরী করার পরেও বিষয়টা নিয়ে ভাবিনি। ভাবা শুরু করলাম গত জাতীয় লীগ থেকে। বেশ কয়েকটা ম্যাচে রান করলেন নয় নাম্বারে, একই ম্যাচে ৬৬ আর ৪৩ করলেন। যারা নিয়মিত জাতীয় লিগ ও ঢাকা লিগের স্কোরকার্ড চেক করেন তারা জানেন রাজু এখন নিয়মিত ৩০+ ইনিংস খেলে থাকেন ওই আট/নয় নাম্বারে নেমেই।

আবুল হাসানের প্রথম শ্রেনীর গড় ২৬.১৯, ফিফটি পাঁচটা, সেঞ্চুরি একটা। জাতীয় লিগ, ডিপিএল, এনসিএল সব মিলিয়ে দেশে যতজন নয় নাম্বার ব্যাটসম্যান আছেন তাদের কয়জনের ২৬+ গড় আছে?

লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে গড় ১৯ (প্রায়), ব্যাট করেন দশ নাম্বারে। দেশে কতজন দশ নাম্বার ব্যাটসম্যানের গড় ১৯ আছে আমাদের? এই ফরম্যাটে আছে তিনটি ফিফটি। চার মেরেছেন ৫০ টি, ছয়ের সংখ্যা ২৭। সর্বোচ্চ ৭২ রান।

এই পরিসংখ্যান আর ব্যাট চালানোর ধরন দেখে আমি তর্ক করেছিলাম রাজু আর যাই হোক ‘টিপিক্যাল নয় নম্বর’ ব্যাটসম্যান না। চোখ কান বুজে স্লগ করা ব্যাটসম্যান না।

ঢাকা ডায়নামাইটসের সাথে ৩০* ইনিংসটা দেখেন। কি সিচুয়েশনে কিভাবে ঠান্ডা মাথায় খেলেছে। নিশ্চয় আন্দাজে পেটাননি।

আবার যদি বোলিং এর কথা বলি গত বিপিএলেও ভালো বল করেছিলো। পাঁচ উইকেট নিয়েছিলো এক ম্যাচে। এবারো খারাপ লাগছে না আমার। স্লোয়ার ডেলিভারি কার্যকর উপায়ে ব্যবহার করছে। তবে বোলিং নিয়ে আরো কাজ করতে হবে আর সেটার জন্য আদর্শ কোচ একাডেমির বোলিং কোচ চম্পাকা রামানায়েকে।

পাশাপাশি একাডেমি দল, এইচপি ইউনিট এবং ‘এ’ দলেও ভালো করছে। সদ্য সমাপ্ত আয়ারল্যান্ড ‘এ’ দলের বিপক্ষে দোদুল্যমান এক ম্যাচে শেষ ওভারে দুটি চার মেরে ম্যাচ জেতালেন।

আসল কথায় আসি, রাজুর ভেতর সম্ভাবনা আছে একজন অল রাউন্ডার হবার রাজুর কাজ রাজু করে যাচ্ছে, এখন সম্ভাবনাকে বাস্তবে প্রতিফলিত করার দ্বায়িত্ব কাদের? আমাদের কোচদের। রাজু যেখানেই খেলুক সেটা জাতীয় দল, জাতীয় লীগ, ডিপিএল, বিপিএল যেটাই হোক সেই দলের ম্যানেজমেন্ট এবং কোচদের উচিৎ রাজুকে নিয়ে কাজ করা। তাকে নয় নাম্বার থেকে আরেকটু উপরে আনা যায় কিনা সেটা ভেবে দেখা।

ক্রিকেটের ইতিহাস ঘাটলে অনেক বড় বড় অল রাউন্ডারের নাম পাবেন যারা দলে এসেছিলো বোলার হিসেবে কিন্তু পরে ব্যাটসম্যান অথবা জেনুইন অল রাউন্ডারে রূপান্তরিত হয়েছিলো। সেই তালিকায় আপনি কপিল দেবের নাম পাবেন, শেবাগের নাম পাবেন, পাবেন তিলকরত্নে দিলশান, জয়াসুরিয়া, ভেট্টরির নাম। সাম্প্রতিক সময়ের ভেতর সবচেয়ে ভালো উদাহরন স্টিভ স্মিথ, লেগ স্পিনার হিসেবে দলে আসেন তিনি, আছে ক্রিস মরিসের নাম, সামিত প্যাটেলের নাম। উইন্ডিজ চেষ্টা চালাচ্ছে কার্লোস ব্রাথওয়েটকে নিয়ে। ড্যারেন স্যামিও দলে আসেন মূলত পেসার হিসেবে।

অন্যদের সাথে আমাদের পার্থক্য হচ্ছে তারা সম্ভাবনা গুলোকে পরিচর্যা করে বাস্তবে রূপ দেয়, আর আমরা অবহেলা করি।

যদিও আমার সেই বন্ধুসম ছোটভাই বলবে রাজু একটা ‘ফ্লুক’, সে আসলে ব্যাটসম্যান না, কিন্তু আমি বলবো যার হাতেখড়ি ব্যাটসম্যান হিসেবে, যার ভেতর সম্ভাবনা এখনো আছে তাকে নিয়ে দীর্ঘমেয়াদে চিন্তা করা উচিৎ।

যদি সত্যিই তাকে নিয়ে এভাবে চিন্তা করা হয় তাহলে বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি দলে তাকে সুযোগ দেয়া যাবে আবার। আমার সবসময় ইংল্যান্ডের বর্তমান কৌশলটা ভালো লাগে। অলরাউন্ডার নির্ভর দল। দলে আসতে হলে আগে ব্যাটিং জানতে হবে! তারপর পেসার না স্পিনার না কিপার সেই হিসাব।

আমিও চাই অন্তত আমাদের টি-টোয়েন্টি দলটা অল রাউন্ডার নির্ভর হোক। যেমন মিরাজ, সাইফউদ্দিন, রাজুরাই মেইন বোলার হবে একসময় কিন্তু সবাই ব্যাটিং-টাও জানবে। বর্তমানে ব্যাট একেবারেই পারেনা এইরকম সর্বোচ্চ একজন খেলোয়াড় রাখা যায় দলে, তার বেশি নয়।

এখন দয়া করে কেউ বলবেন না আমি রাজুকে এখনই জাতীয় দলে চাচ্ছি, বিষয়টা সেটানা, একটা সম্ভাবনার কথা মাথায় আসলো তাই লিখলাম।

Category : মতামত
Share on your Facebook
Share this post