সুইসাইডাল ও দায়িত্ববোধহীন ব্যাটিং

মাহিয়ান মিশুক
ডিসেম্বর ২৯, ২০১৬
 মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ  করেন এক রান। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে তিনি ব্যর্থ হলেন। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ  করেন এক রান। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে তিনি ব্যর্থ হলেন।

তথ্য ১:

নেলসনের স্যাক্সটন ওভালে এটা ছিল নিউজিল্যান্ডের পঞ্চম ওয়ানডে। এর আগে আর কখনওই স্বাগতিকরা এই মাঠে এত কম রানে অল আউট হয়নি।

তথ্য ২:

বাংলাদেশ এই মাঠে এর আগে একটা ম্যাচই খেলেছিল। ২০১৫ সালের বিশ্বকাপের সেই ম্যাচে সেবার স্কটল্যান্ডের দেওয়া ৩১৮ রানের জবাবে বাংলাদেশ ছয় উইকেট হাতে রেখে হেসে খেলে জিতে গিয়েছিল। সেই ম্যাচে বাংলাদেশের ৩২২ রানই এই ম্যাচের সর্বনিম্ন রান।

তথ্য ৩:

নিউজিল্যান্ডের মাঠগুলো বিশ্বের অন্য অনেক অঞ্চলের মাঠ থেকে আকারে ছোট। স্যাক্সটন ওভালও তার ব্যাতিক্রম নয়।

তথ্য ৪:

২২ ওভার পাঁচ বল শেষে বাংলাদেশের স্কোর ছিল এক উইকেট হারিয়ে ১০৫ রান। উইকেটে ছিলেন দুই সেট ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস ও সাব্বির রহমান রুম্মান।

এসব তথ্য মাথায় রাখুন। আর ম্যাচের ফলাফলটা এবার মেলানোর চেষ্টা করুন। কোনো ভাবে কি মনে হচ্ছে, ম্যাচটাতে বাংলাদেশের হেরে যাওয়ার কোনো কারণ আছে? এই ম্যাচে বাংলাদেশের জিততে না পারার কোনো কারণ ছিল না।

কিন্তু, তারপরও বাংলাদেশ হেরে গেছে। কারণ এক উইকেট হারিয়ে করা ১০৫ রান থেকে বাংলাদেশ ১৮৪ রানে অল আউট হয়ে গেল। শেষ ১৯.৫ ওভারে ৭৯ রান করতে না করতেই বাকি নয়টা উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ।

৩০ রানরে মাথায় তামিম ইকবালের বিদায় ঘটলেও সাব্বির রহমান রুম্মান আর ওপেনার ইমরুল কায়েস ভালই জবাব দিয়ে যাচ্ছিলেন। দুই ব্যাটসম্যানের ভুল বোঝাবুঝিতে ৩৮ রানে রান আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন সাব্বির। তবে, রান আউটের ধরনটা ছিল খুবই দৃষ্টিকটু আর দায়িত্বজ্ঞানহীন।

তখনও ম্যাচ বাংলাদেশের হাতের মুঠোয়। কিন্তু একটা দায়িত্ববোধহীন রান আউটই যেন বাংলাদেশের মিডল অর্ডারকে করে দিলো আরও দায়িত্ববোধশূণ্য।

মারাত্মক ভাবে ব্যর্থ হয় বাংলাদেশের মিডল অর্ডার। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ  করেন এক রান। টানা দ্বিতীয় ম্যাচে তিনি ব্যর্থ হলেন। সাকিব আল হাসান করেন সাত রান। অবিবেচক শট খেলতে গিয়ে আউট হন। মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের, অভিষিক্ত তানভির হায়দার দুইয়ে বাংলাদেশের ইনিংস আর লম্বা হয়নি।

ম্যাচের গতিবিধির সাথে দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারেননি কেউই। ৫৯ রান করা ইমরুল কায়েসের অ্যাপ্রোচও বিভ্রান্তিকর ছিল। আউট হওয়ার ধরণও ছিল চোখে লাগার মত।

শেষের দিকে মাশরাফি বিন মুর্তজার ১৭ আর নুরুল হাসান সোহানের ২৪ রান পরাজয়ের ব্যবধান কমায় শুধু। আর রেখে গেল একটা আক্ষেপ। ব্যাটসম্যানরা এমন আত্মহত্যার মিছিলেন না নামলে নিউজিল্যান্ডকে হারানোটা শুধু সময়ের ব্যাপার ছিল।

Category : মতামত
Share on your Facebook
Share this post