আপনি বদলালেই বদলাবে দেশ

প্রতীকি ছবি প্রতীকি ছবি

আচ্ছা বলুন ত বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা কোনটি?

হু, উত্তর টা বড্ড সহজ, ভদ্রলোকের খেলা ক্রিকেট। এ দেশের খেটে খাওয়া সমাজ থেকে দামী স্যুট গায়ে জড়িয়ে অফিস করা মানুষ; সবাই ক্রিকেটপ্রেমী। চায়ের দোকানে চুমুকে চুমুকে চলে ক্রিকেট নিয়ে তর্ক-বিতর্ক।

বড় পর্দা টানিয়ে চলে খেলা নিয়ে হৈ-হুল্লোড়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্রীড়াপ্রেমী এসব জনতা নিজেদের মত প্রকাশ করে। অনেকেই প্রিয় ক্রিকেটার দের নিয়ে গ্রুপ-ইভেন্ট খুলে ভালোবাসা জানায়। তবে মুদ্রার দুই পিঠের মতো মতো ফ্যানবেজের মধ্যেও ভালো-মন্দ উভয়ই আছে।

ক্রীড়াপ্রেমী এ জনতার ক্রিকেট নিয়ে পাগলামি এই পর্যন্তই ঠিক ছিলো।

সম্ভবত একমাত্র আমাদের দেশেই ক্রিকেটারদের এত কাছে পাওয়া যায়। বিভিন্ন গ্রুপের জন্মদিন, খেলোয়াড় দের জন্মদিনে প্রায়শই ফ্যানদের সাথে ক্রিকেটাররা কিছু মুহুর্ত কাটায়। আর আমরাও স্বপ্নের তারকাদের এত কাছে পেয়ে ভূলে যাই যে, তারা জাতির প্রতিনিধি হয়ে দেশকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যায়। আমরা বিশেষ কোন ক্রিকেটারের ফ্যান হয়ে অন্য ক্রিকেটারদের তুচ্ছ করি, নামের আগে-পিছে অমুকিয়ান, তমুকিয়ান ট্যাগ লাগাই।

আবার এই আমরাই আমাদের দেশকে প্রতিনিধিত্ব করা ক্রিকেটারদের পেজে গিয়ে তাদের অপমান করি। আমরা সাকিব আল হাসানের পেজে গিয়ে তার স্ত্রী কে নিয়ে বাজে মন্তব্য করি, হরহামেশাই সাকিব কে গালাগাল করি, আমাদের ভয়ানক থাবা থেকে বাদ যায় না ছোট্ট শিশু সাকিব কন্যা অব্রিও। নাসির হোসেনের পেজে গিয়ে আমরাই তার বোনকে উদ্দেশ্য করে বাজে মন্তব্য করি। আমাদের জন্যে বাংলাদেশের রঙ্গিন জার্সির দলনেতা মাশরাফি বিন মুর্তজা তার পেজ কান্ট্রি রেস্ট্রিকশন করেছিলো। যার জন্যে মাঝে কয়েকদিন ম্যাশের অফিসিয়াল পেজে বাংলাদেশ থেকে প্রবেশ করা যেতো না।

তামিম ইকবালের বাজে ফর্মের সময় তার বাসায় ফোন করে তার স্ত্রীকেও গালাগাল করেছিলো এই ফ্যানেরাই। তামিম ইকবাল একবার বলেও ছিলো আমার ফ্যানের চেয়ে আমার হেটার বেশী। একটা দেশের শীর্ষস্থানীয় খেলার সেরা তারকার মুখ থেকে যখন এ কথা বের হয়, তখন স্বভাবতই মাথায় ঘুরপাক খায় কতটা কষ্ট নিয়েই এ কথা টা সে বলেছিলো। এই যে আজকের বাংলাদেশ কিন্তু একদিনে এতদূর আসে নি।

একটা সময় যে বাংলাদেশ কে সবাই বলে কয়েই হারাতো আজ তারাই ২২ গজে বাংলার বাঘেদের সমীহ করে বেড়ায়। বাংলাদেশের খেলা শেষ টানা ৭ টা ওয়ানডে সিরিজের ৬ টাতেই সিরিজ জয় তারই প্রমান। একসময়ে বাংলাদেশের কেউ অলরাউন্ডারদের র‌্যাংকিংয়ে সেরা হতে পারে নি। সাকিব আল হাসান সেই আক্ষেপ টা মিটিয়েছে। আইসিসির কোন ক্যাটাগরি তে কোন বাংলাদেশী কখনো পুরষ্কার পায় নি। প্রথমবারের মতো মুস্তাফিজুর রহমান এইবছর বর্ষসেরা উদিয়মান খেলোয়াড় নির্বাচিত হলেন। পরিবর্তন এভাবেই আসবে, দিন বদলেছে, ওরাও বদলেছে। আসুন আমরাও বদলাই, মাঠে কিংবা মাঠের বাইরে ক্রিকেটারদের সম্মান দেই।

আপনি বদলালেই বদলাবে এই সোনার দেশ টা।

Category : মতামত
Share this post