ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপ: বিশ্বকাপের চেয়েও জমজমাট?

খেলাধুলা ডেস্ক
মার্চ ২২, ২০১৭
আন্তর্জাতিক ফুটবল না ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবল - কোনটা বেশি জনপ্রিয়? আন্তর্জাতিক ফুটবল না ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবল - কোনটা বেশি জনপ্রিয়?

আন্তর্জাতিক ফুটবল না ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবল - কোনটা বেশি জনপ্রিয়? এই বিতর্কটা আরও বেশি জমিয়ে তুলতে যাচ্ছে ইন্টারন্যাশনাল ক্লাব কাপ। যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও সিঙ্গাপুরে একই মঞ্চে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ইউরোপের সবগুলো জনপ্রিয় ফুটবল ক্লাব।

এই টুর্নামেন্টটা যে খুবই আকর্ষণীয় একটা ফুটবল টুর্নামেন্টে রূপ নিতে যাচ্ছে সেটা না বলে দিলেও চলে। কারণ, সেখানে খেলতে যাচ্ছেন বিশ্বের নামি দামি সব ফুটবল ক্লাব। বৈশ্বিক অনেক গণমাধ্যমই তাই এই টুর্নামেন্টটিকে আগে-ভাগেই বিশ্বকাপের চেয়েও জমজমাট বলে রায় দিয়ে দিয়েছে।

এর মধ্যে ক্লাবগুলোর সবচেয়ে বড় সমাগম হবে যুক্তরাষ্ট্রে। ইংল্যান্ড থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটি ছাড়াও আছে টটেনহ্যাম হটস্পার।

লা লিগা থেকে আছে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা। ইতালিয়ান সিরি ‘এ’ থেকে আসছে জুভেন্টার আর এএস রোমার মত ক্লাব। বাদ থাকছে না ফ্রেঞ্চ লিও ওয়ানও। সেখান থেকে আসবে তারকাখঁচিত দল পিএসজি।

আর এই টুর্নামেন্টেই এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মত স্পেনের বাইরে এল ক্লাসিকো অনুষ্ঠিত হবে। ৩৫ বছর পর মিয়ামির হার্ড রক স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হবে রিয়াল মাদ্রিদ ও বার্সেলোনা।

এখন পর্যন্ত মোট ২৩২টি এল ক্লাসিকোর মাত্র একটি ম্যাচই হয়েছে স্পেনের বাইরে। ১৯৮২ সালে ভেনেজুয়েলায় সেই ম্যাচে ভিসেন্তে ডেল বস্কের একমাত্র গোলে বার্সেলোনাকে হারিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ।

শুধু এল ক্লাসিকোই নয়, যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপে (আইসিসি) ম্যানচেস্টার ডার্বিরও দেখা মিলবে। আর এরই মধ্য দিয়ে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের দুই জায়ান্ট ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও ম্যানচেস্টার সিটি মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ডের বাইরে। ম্যাচটা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২০ জুলাই।

গত বছর, প্রাক মৌসুম প্রস্তুতি ম্যাচে মুখোমুখি হওয়ার কথা ছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দু’দলের। কিন্তু, বেইজিংয়ের সেই ম্যাচটা বাতিল হয় বৃষ্টির কারণে। ফলে, নিশ্চিন্ত ভাবেই বলা যায়, আগামী জুলাইয়ের এই ম্যাচটা ইতিহাসের পাতায় লেখা হয়ে থাকবে। ইংল্যান্ড ও স্পেনের পর এবার যুক্তরাষ্ট্রের মাটিতে প্রথমবারের মত দেখা যাবে হোজে মরিনহো আর পেপ গার্দিওলার দ্বৈরথ।

এই ফুটবল আসরটি আয়োজন করছে রেলিভেন্ট স্পোর্টস। আর তাদের আমন্ত্রণটা লুফে নিয়েছে প্রাকমৌসুম প্রস্ততির অপেক্ষায় থাকা ইউরোপের শীর্ষ দলগুলো। সংস্থাটির কর্ণধার, ‘ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপ এবার ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে জমজমাট দুটি লড়াই আয়োজন করতে যাচ্ছে। একটা হল এল ক্লাসিকো আরেকটা ম্যানচেস্টার ডার্বি। আমরা বিশ্বের তিনটা জনপ্রিয় ফুটবল লিগের চ্যাম্পিয়ন দল সহ মোট চারটা লিগের বড় বড় দলগুলোকে পাচ্ছি। আমাদের সাথে আছে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের বর্তমান চ্যাম্পিন দল রিয়াল মাদ্রিদ। খুবই জমজমাট ফুটবল দেখার অপেক্ষা করছি আমরা।’

ইন্টারন্যাশনাল চ্যাম্পিয়ন্স কাপ (আইসিসি) এই নিয়ে পঞ্চমবারের মত আয়োজিত হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রে। চীন ও সিঙ্গাপুরেও অনুষ্ঠিত হবে একই রকম ফুটবল আসর। সেখানে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের এই মৌসুমের সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন দল চেলসি ছাড়াও আছে আর্সেনা। এর সাথে যোগ হবে বুন্দেসলিগার শীর্ষ দুই দল বায়ার্ন মিউনিখ ও বরুশিয়া ডর্টমুন্ড।

সিরি ‘এ’র ওপরের দিকে থাকা দুই দল এসি মিলান ও ইন্টার মিলানও বাদ পড়ছে না। শুধু তাই নয়, চীনের নানজিংয়ে আগামী ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হবে মিলান ডার্বি।

আশার ব্যাপার হল, সব গুলো ম্যাচই সম্প্রচারের জন্য আয়োজকদের সাথে এরই মধ্যে ইএসপিএনের চুক্তিও হয়ে গেছে। ফলে, ড্রইং রুমে আরাম করে বসে টেলিভিশন পর্দায়  উপভোগ করা যাবে ম্যাচগুলো।

পূর্ণাঙ্গ সূচি

যুক্তরাষ্ট্র -

১৯ জুলাই: রোমা-পিএসজি

২১ জুলাই: ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড-ম্যানচেস্টার সিটি

২২ জুলাই: জুভেন্টাস-বার্সেলোনা

২২ জুলাই: পিএসজি-টটেনহ্যাম

২৩ জুলাই: রিয়াল মাদ্রিদ-ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

২৫ জুলাই: টটেনহ্যাম-রোমা

২৬ জুলাই: বার্সেলোনা-ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

২৬ জুলাই: ম্যানচেস্টার সিটি-রিয়াল মাদ্রিদ

২৬ জুলাই: পিএসজি-জুভেন্টাস

২৯ জুলাই: ম্যানচেস্টার সিটি-টটেনহ্যাম

২৯ জুলাই: রিয়াল মাদ্রিদ-বার্সেলোনা

৩০ জুলাই: রোমা-জুভেন্টাস

চীন -

১৮ জুলাই: এসি মিলান-বরুশিয়া ডর্টমুন্ড

১৯ জুলাই: বায়ার্ন মিউনিখ-আর্সেনাল

২২ জুলাই: বায়ার্ন মিউনিখ-এসি মিলান

২৪ জুলাই: ইন্টার মিলান-এসি মিলান

সিঙ্গাপুর -

২৫ জুলাই: চেলসি-বায়ার্ন মিউনিখ

২৭ জুলাই: বায়ার্ন মিউনিখ-ইন্টার মিলান

২৯ জুলাই: চেলসি-ইন্টার মিলান

Category : ফিচার
Share on your Facebook
Share this post