ডিসেম্বরে শুরু হাতুরুর শ্রীলঙ্কা মিশন

মাহিয়ান মিশুক
নভেম্বর ২৫, ২০১৭
শ্রীলঙ্কার কোচ হওয়ার দুয়ারে চান্দিকা হাতুরুসিংহে শ্রীলঙ্কার কোচ হওয়ার দুয়ারে চান্দিকা হাতুরুসিংহে

ডিসেম্বরের শুরুতেই শ্রীলঙ্কার কোচ হিসেবে যাত্রা শুরু হতে যাচ্ছে চান্দিকা হাতুরুসিংহের। যদিও, চাকরির শর্ত অনুযায়ী তিন মাসের ‘নোটিশ পিরিয়ড’ কাটাতে হবে তাকে। সেই শর্ত মানলে আগামী বছর ১৫ জানুয়ারির আগে শ্রীলঙ্কা দলের দায়িত্ব গ্রহণ করতে পারবেন না তিনি। অথচ ৫ জানুয়ারিই বাংলাদেশ সফরে আসার কথা শ্রীলঙ্কার।

এই জটিলতা সমাধাণের জন্য বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) সভাপতিকে ব্যক্তিগতভাবে চিঠি দিয়েছিলেন ক্রিকেট শ্রীলঙ্কার (এসএলসি) সভাপতি। সেই চিঠির উত্তরে বাংলাদেশ কী অবস্থান নিয়েছে, সেটা এখনও জানা যায়নি। তবে শ্রীলঙ্কার সংবাদ মাধ্যম বলছে, জটিলতা এর মধ্যে অবসান হয়ে যাবে বলে তাদের বিশ্বাস।

মায়ের সাথে দেখা করতে গত সপ্তাহের শুরুর দিকে শ্রীলঙ্কায় পৌছান হাতুরুসিংহে। সেই সাথে এই সফরে একাধিকবার তিনি বৈঠক করেছেন এসএলসি কর্মকর্তাদের সাথে। এইসব বৈঠক থেকে এসএলসি একরকম নিশ্চিত করেছে যে, তাদের সাথে এই কোচের সব আলোচনা সফলভাবে শেষ হয়েছে। এখন ডিসেম্বরে তার দায়িত্ব নেওয়ার অপেক্ষা কেবল।

ক্রিকেট বিষয়ক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজকে এসএলসির এক নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন এই খবর। তিনি বলেছেন, ‘আমরা খুব আনন্দিত যে, আলোচনা সফল হয়েছে। সে (হাতুরুসিংহে) বোর্ডে এসেছিলো। সেই সাথে আমাদের যে অবকাঠামোগত সুযোগসুবিধা আছে, সেগুলোও সে ঘুরে দেখেছে।’

এই কর্মকর্তা বলেছেন, বোর্ডের সহসভাপতি কাঙ্গাথারান মাথিবানান দেখভাল করছেন হাতুরুসিংহের সাথে এই আলোচনা। তিনিই কোচকে রাজী করিয়েছেন শ্রীলঙ্কার দায়িত্ব নেওয়ার ব্যাপারে, ‘সে (হাথুরুসিংহে) আমাদের বোর্ডের সহসভাপতি কাঙ্গাথারান মাথিবানানের বেশ ঘনিষ্ঠ। উনিই হাথুরুসিংহেকে রাজী করিয়েছেন হেড কোচের দায়িত্ব নেওয়ার জন্য। সেই সাথে তিনিই আলোচনায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন।’

ঘটনাচক্রে এই কাঙ্গাথারান মাথিবানানই ২০০৭ সালে প্রথমবার শ্রীলঙ্কায় ফিরিয়েছিলেন হাতুরুসিংহেকে। শ্রীলঙ্কা জাতীয় দল থেকে অবসরের পর এবং ক্রিকেট ছাড়ার পর প্রথমে দেশের বাইরেই বিভিন্ন কাজ করছিলেন তিনি। ২০০৭ সালে ছিলেন আরব আমিরাত জাতীয় দলের কোচ। সেই সময় কাঙ্গাথারান মাথিবানান তাকে রাজী করান শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের দায়িত্ব নিতে।

Category : খবর
Share on your Facebook
Share this post